পূর্বাচল মানব কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ উপহার প্রদান

120

রূপগঞ্জ(নারায়ণগঞ্জ)প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের ব্রাহ্মণখালী এলাকায় ৬ শতাধিক দরিদ্র মানুষের মাঝে ঈদ উপহার প্রদান করা হয়েছে। পূর্বাচল মানব কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে জনতা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দরিদ্র মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী উপহার হিসেবে প্রদান করা হয়। রূপগঞ্জের ৪নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন গ্রামসহ আশপাশের আরও ৫/৬টি গ্রামের অসহায় ও দরিদ্র মানুষের মাঝে এসব সামগ্রী বিতরণ করা হয়। পূর্বাচল মানব কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার রিটন প্রদাণে সার্বিক সহযোগিতায় এসব ঈদ উপহার প্রদান করা হয়। ঈদ সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে- সেমাই, চিনি, চাল, ডাল, আলু, পিয়াজ, সাবান ইত্যাদি। এসব ঈদ সামগ্রী পেয়ে খুশি হয়েছেন সুবিধাভোগীরা।
ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো: মোক্তার হোসেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রিপন গ্রিন এগ্রোর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মো: রিপন মিয়া। ঈদ সামগ্রী প্রদান অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন সলিম উদ্দিন চৌধুরী বিশ^বিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মো: জাহাঙ্গীর মালুম। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন রেজা কন্সট্রাকশনের সত্ত্বাধিকারী মো: জহিরুল হক। বক্তব্যে অতিথিরা রিটন প্রধানের এমন উদ্যোগের প্রশংসা করেন। এভাবে সামাজিক কাজে জড়িত থাকায় রিটন প্রধান সমাজে জনপ্রিয়তা অর্জন করছেন। পরে সুবিধাভোগীদের হাতে ঈদ সামগ্রীর ব্যাগ তুলে দেন উপস্থিত অতিথিবৃন্দ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পূর্বাচল মানব কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা মো: রিটন প্রধান, সংস্থাটির সভাপতি হামিদা সরকার, সাধারণ সম্পাদক বাবুল হোসেন, কুসুম ভূইয়া, অ্যাডভোকেট আক্তারুজ্জামান, নজরুল ইসলাম, আব্দুল হামিদ, আব্দুল হালিম, আতাউর রহমান, আসাদুল্লাহ মোল্লা, শেখ রাজিব, সৈয়দ শাহিন আহমেদ, জাহিদ, শিপন, হাফিজুল প্রমুখ। বিশেষ বক্তব্যে রিটন প্রধান বলেন, আমি আমার ওয়ার্ড ছাড়াও আশপাশের অসহায় মানুষের জন্য এবার এসব ঈদ সামগ্রী বিতরণ করছি। এ কাজ করতে যারা আমাকে সহযোগিতা করেছেন আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি এভাবে আগামীতেও সাধারণ মানুষের পাশে থাকবো।
উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠিত পূর্বাচল মানব কল্যাণ সংস্থা প্রতি বছর পবিত্র ঈদুল ফিতরের আগে অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী উপহার প্রদান করেন। এছাড়াও সংস্থাটি গৃহহীন দেন ঘর প্রদান, চিকিৎসা ব্যয় বহন, হুইল চেয়ার বিতরণ, চোখের চিকিৎসার ব্যবস্থা, শিক্ষা অনুদান, রিকশা প্রদান ও সেলাই মেশিন বিতরণ করে আসছে। আাগমীতে আরও ব্যাপকভাবে তারা কার্যক্রম করার ইচ্ছা পোষণ করেন।