চিরিরবন্দরে ভিয়াইল ইউপি চেয়ারম্যান দায়িত্ব গ্রহণ করেন মোঃ আব্দুর রাজ্জাক শাহ্

54

স্টাফ রিপোর্টারঃ চিরিরবন্দর উপজেলার ৯নং ভিয়াইল ইউনিয়নবাসীর ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করলেন নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রাজ্জাক শাহ। এ উপলক্ষ্যে বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৪ ঘটিকায় ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় । দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার ভিয়াইল ইউনিয়ন পরিষদে নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ও সাধারণ সদস্যগণের শপথ গ্রহণ করার পর প্রথম সভার মধ্য দিয়ে বরণ অনুষ্ঠান শেষে দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন। বিকাল ৪ ঘটিকায় ৯নং ভিয়াইল ইউনিয়ন পরিষদে বিপুল ভোটে নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রাজ্জাক শাহ ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে প্রথম সভার মধ্য দিয়ে বরণ অনুষ্ঠান হয়েছে। আলহাজ্ব তোজাম্মেল হক এর সভাপতিত্বে ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নব নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রাজ্জাক শাহ।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মোঃ আতাউর রহমান নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ৮নং শংকরপুর ইউপি সদর দিনাজপুর, মোঃ এনামুল হক সহকারি প্রধান শিক্ষক পাঁচবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়, ননী গোপাল রায়, সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ মতিউল ইসলাম জুয়েল, নব নির্বাচিত ইউপি সদস্য লোকনাথ রায়, মোঃ মিজানুর রহমান, মোঃ আতাউর রহমান, লালন কুমার রায় লিটন, কমল রায়, ঊষা রাণী রায়, ভারতী রাণী রায়, ইউপি সচিব মোঃ রাশেদুর তালুকদার। এছাড়াও উপজেলার ৯নং ভিয়াইল ইউনিয়নের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রাজ্জাক শাহ সকালে ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে নির্বাচিত সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ও সাধারণ সদস্যদের নিয়ে প্রথম সভা শেষে ইউনিয়ন পরিষদ সচিব মোঃ রাশেদুর তালুকদার এর কাছে আয়-ব্যয়ের হিসেব বুঝে নেন।

উল্লেখ্য ৫ জানুয়রি ২০২২খ্রিঃ তারিখে চিরিরবন্দর উপজেলায় ৫ম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। আলোচনায় ভিয়াইল ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রাজ্জাক শাহ বলেন, নয়টি ওয়ার্ডের নির্বাচিত সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্যদের সাথে নিয়ে, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ মুক্ত একটি মডেল ইউনিয়ন পরিষদ গঠন করার জন্য ইউনিয়নবাসীর সহায়তা কামনা করছি”। এছাড়াও সরকারি ভাতা প্রকৃত হকদার নারী পুরুষদের মাঝে সরকারি বিধি অনুযায়ী বিতরণ করা হবে”। ইউপি সদস্য লোকনাথ রায় বলেছেন, “টাকার বিনিময়ে ভাতা বানিজ্য বন্ধ করার জন্য ইউপি সদস্য হয়েছি। নির্বাচিত হবার পর তিনি তার নিজ অর্থায়নে এলাকায় সাহায্য সহায়তা করে যাচ্ছেন এবং তার ওয়ার্ডে শতভাগ সেনিটেশন নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দেন। এসময় সকল সংরক্ষিত মহিলা সদস্য সাধারণ সদস্যসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।