আর কতো প্রাণ গেলে টনক নড়বে সাওঘাট পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের

83

রূপগঞ্জ(নারায়ণগঞ্জ)প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার গোলাকান্দাইল ইউনিয়নের সাওঘাট এলাকার পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের পিছনে শফিউল্লাহ্র বহুতল ভবনের ছাদের উপরে ৩৩ হাজার ভোল্টেজের তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে এক বছরের মধ্যে দুটি মৃত্যু হয়েছে। গত বুধবার(১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে উপজেলার গোলাকান্দাইল সাওঘাট পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের পিছনে শফিউল্লাহ্র বহুতল ভবনের ছাদে কবুতর ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে কবির হোসেন(৩০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এর আগে একই ভবনের ছাদে সাওঘাট এলাকার দবিরউদ্দিনের বাড়ির ভাড়াটিয়া এরফান আলীর মেয়ে খাদিজা(১০) নামে এক কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে।

আরও জানা যায়, বাড়ির মালিক শফিউল্লাহ্কে সাওঘাট পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তারা বার বার এবিষয়ে সতর্ক করলেও সে এবিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। এই ভবনের ছাদের উপরে ৩৩ হাজার ভোল্টেজের তারের বিষয়টি সে জেনেও বার বার এড়িয়ে গেছেন। এমন কি খাদিজা নামের কিশোরীর মৃত্যুর পরও সে সচেতন না হওয়ায় এবং সঠিক পদক্ষেপ না নেওয়ায় কবির হোসেন নামে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এমন দুইটি ঘটনা ঘটে যাওয়ার পরও শফিউল্লাহ্র বিরুদ্ধে কেনো মামলা হয়নি। জনগণের প্রশ্ন তার খুঁটির জোর কোথায়? আর কতো লাশ পরলে তার বিরুদ্ধে মামলা হবে এবং পল্লীবিদ্যুতের টনক নড়বে?এবিষয়ে শফিউল্লাহর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি সবার সাথে মিট-মাট করেছি এ নিয়ে কোনো রকম ঝামেলা হবে না। এছাড়া আমার বন্ধু-বান্ধব সবাই বড় বড় সাংবাদিক তুমি নিউজ করে কি করবে? আগেও একটি ঘটনা ঘটে ছিলো তখনই কেউ কিছু করতে পারেনি এখন তুমি নিউজ করে কি করবে?

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সাওঘাট অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার শান্তনু রায় বলেন, এই ভবনের তারের বিষয়টি আমার আগে জানা নেই। আমি এই অফিসে নতুন এসেছি বেশি দিন হয় না। ভবনের মালিক এমন কোনো লিখিতও দেয়নি তাদের ভবনের উপর দিয়ে তার গিয়েছে। তবে কবির হোসেন নামে এক যুবকের মৃত্যুর পর আগের মৃত্যুর বিষয়টিও জানতে পেলাম। আমি এইটি সরানোর ব্যবস্থা করছি। এছাড়া তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে মুঠোফোনে সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার মোঃ রফিকুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার এই বিষয়টি জানা নেই।