আমাদের সম্পর্কের ঘাটতি হবেনা : আইভী

70

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) নবনির্বাচিত মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, আমাদের এটা পারিবারিক সর্ম্পক। আমি পুরো নির্বাচনেই বলার চেষ্টা করেছি রাজনীতির জায়গায় রাজনীতি আর পারিবারিক সর্ম্পকের জায়গায় কোন ঘাটতি হবে না। অতীতে যেমন ছিলো এখন সেই রকমই থাকবে। সোমবার (১৭ জুন) সোমবার বিকেল পৌঁনে ৫টার দিকে মাসদাইরে মজলুম মিলনায়তনে যান আইভী। সঙ্গে ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আদিনাথ বসু, যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। ওই সময়ে বাসার নিচ তলাতেই অবস্থান করছিলেন তৈমূর ও তার পরিবারের লোকজন। দুইজন একত্রে হলে এক আবেগঘন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। রুমে ঢুকতেই আইভীকে পেয়ে বুকে টেনে নেন তৈমূর। তখন আইভী বলেন, ভোটে যাই হোক আমরা তো চাচা ভাতিজি। এ সম্পর্কটা আর কখনো নষ্ট হবে না। এ সময় তৈমূরের পা ছুয়ে দোয়া নেন আইভী। তৈমুর আলমকে কাছে পেয়ে তার কেমন লাগছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মেয়র আইভী বলেন, তিনি আমার কাকা, আমি আগেই বলেছি আমি যাবোই তার বাসায়। তার মেয়ে জিতেছে, জিজ্ঞেস করেন ( তৈমুরের উদ্দেশ্যে)। এছাড়াও আইভী বলেন, ভবিষৎতে কাজ করতে গেলে কাকার পরামর্শ অবশ্যই নিবো। বিগত নারায়ণগঞ্জ পৌরসভায় নির্বাচিত হয়েও এসেছিলাম তখনও তিনি অনেক পরামর্শ দিয়েছেন। কাকাকে সাথে নিয়েই অনেক উন্নয়ন মুলক কাজ করেছি। কাকা আমার একটা স্কুলের জন্য সহযোগিতা করেছে, এমন সহযোগীতা থাকবেই কারন আমরা নারায়ণগঞ্জের মানুষ এবং সেই সাথে একটা সর্ম্পক আছে। সেই সম্পর্কের আলোকে, নারায়ণগঞ্জবাসির স্বার্থে, জনগনের স্বার্থে, দলের উর্ধ্বে উঠে কাজ করা এটা একটা শ্রেষ্ঠ এবাদত। আমি কাকার থেকে পরামর্শ অবশ্যই চাইবো। যেই আশ্বাস কাকা দিয়েছেন সেই গুলো আমি বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করবো। তার পরামর্শ নিবো। তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমি আপনাদেরও সবার শুভকামনা চাচ্ছি। আপনারা সমালোচনা আর না করে আরো সহযোগীতা করবেন। তিনি আরও বলেন, কাকির সাথে সব সময় আমার কথা হয়। কাকি আমার খোঁজ খেবর নেন। আমি এই রাস্তা দিয়ে আমার বাবার কবরে যাই, যাওয়ার সময় আমি দেখা করে যেতাম। কাকার ছোট ভাই খোরশেদ আলম খন্দকার আমারই কাউন্সিলর। আমি অনেক সহযোগীতার মাধ্যমেই তার কাজ করে থাকি। ওই রকম কিছুই থাকবেনা। ইলেকশন কয়েক দিনের বিষয়। এইটা এই রকমই হয়। আপনারাও মিডিয়া খোঁচাখুচি করে অনেক কিছু বের করার চেষ্টা করেন। যাই হোক এমন না হলে ইলেকশনের মজা থাকে না, এইটা যেন এই পর্যন্তই থাকে। আমারা যেন নারায়ণগঞ্জে বসবাস করতে পারি ও এক সাথে কাজ করতে পারি।