পুকুরে মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেল বাবুর

42

ভুরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার জয়মনিরহাট ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের ছোটখাটামারী গ্রামের মোঃ হাতেম আলীর দ্বিতীয় পুত্র মোঃ ইসমাইল হোসেন বাবু (৩০) পুকুরে মাছ ধরতে গিয়ে পা পিছলে পরে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে মারা যায়। ঘটনা সুত্রে জানা যায়,  রবিবার (৫ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা ৩০ মিনিটের দিকে তারা দুই ভাই মিলে পুকুরে মাছ ধরতে নামে, ছোট ভাই মোঃ জুয়েল হোসেন পুকুরে থাকে ও বড় ভাই পুকুর থেকে উঠতে গিয়ে পা পিছলে পানি উত্তোলনের মোটরের উপর পড়ে গেলে সেখানে অরক্ষিত অবস্থায় একটি বৈদ্যুতিক মোটরের লাইনের সংযোগে হাত পরলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে তাড়াতাড়ি পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় বাসিন্দারা ভুরুঙ্গামারী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক পরীক্ষা করে মৃত বলে ঘোষণা করে। স্থানীয় প্রতিবেশী আব্দুল খালেক, মনির হোসেন জানান, অসতর্কতাবশত পানি উঠানোর মোটর যে সাইডে ছিল ওই সাইড দিয়ে উপরে উঠার সময় পুকুরে পা পিছলে পড়ে যাওয়ার সময় মোটর ধরে সাহায্য নিতে চাইছিল বলে মনে হয়, আর সেখানে বৈদ্যুতিক সংযোগ অরক্ষিত থাকা একটি তারের মাথায় হাত লেগে তার মৃত্যু হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। লাশ নিয়ে এসে বাড়িতে স্থানীয় নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াদুদ সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ সাখাওয়াত হোসেন সানোয়ার এর উপস্থিতিতে সদর থানা থেকে আসা পুলিশ লাশ দাফনের অনুমতি দেয় বলে জানান বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ। এ বিষয়ে ভুরুঙ্গামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব আলমগীর হোসেনকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, এটা হচ্ছে আননেচারাল ডেড এটার ক্ষেত্রে পুলিশ দেখে এসেছে, নিজেদের ভূলের কারণে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট, এখানে কোন ঝামেলা নেই। লাশ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট মারা গেছে পুলিশ লাশ দাফনের জন্য অনুমতি দিয়ে এসেছে।