কলারোয়ায় নিরহ ভ্যান চালকের কুড়ে ঘর আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়ার অভিযোগ

77

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার কলারোয়ায় অসহায় ভ্যান চালকের জমি দখল করতে না পেরে রাতের আঁধারে আগুন দিয়ে কুড়েঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। প্রতিবাদ করাতে সেই অসহায় ভ্যান চালকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে থানা পুলিশে ধরিয়ে দিয়েছে তার চাচাতো ভাইয়ের ছেলে ইমাদুল ইসলাম ইমাদুলকে। ঘটনাটি ঘটেছে,উপজেলার কুশোডাঙ্গা ইউনিয়নের পিছলাপোল গ্রামে। ক্ষতিগ্রস্ত ভ্যান চালক আবুল কাশেম সাংবাদিকদের জানান-রোববার রাতে তার কুড়ে ঘর আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয় প্রতিপক্ষরা। আগুন দেখে চিৎকার করলে স্থানীয়রা এসে পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রয়নে আনে।

ততক্ষনে সকল আসবাপত্র আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ঘটনার বিবরণে তিনি জানান-দীর্ঘ দিন ধরে প্রতিপক্ষ আকছেদ আলী গাজী ও আজগার আলীর সাথে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এঘটনার জের ধরে ৫/৬ বার নিরহ ভ্যান চালকসহ তার পরিবারবর্গের উপর হামলা করে বাড়ী-ঘর ভাংচুর করেছে। এবিষয় নিয়ে সাতক্ষীরা আদালতে পৃথকভাবে ৩টি মামলা চলমান রয়েছে। তার পরেও গত ৯নভেম্বর সকাল সাড়ে ৬টার দিকে আজগার আলী ও আকছেদ আলী গাজী কলারোয়ার দেয়াড়া, ঝিকরা ও মির্জাপুর থেকে লোক ভাড়া করে নিয়ে নিরহ ভ্যান চালকের কুড়ে ঘর ভাংচুর করে।

এতে বাধা দিতে গিয়ে ভ্যান চালক আবুল কাশেম (৫২), বৃদ্ধা মা রহিমা খাতুন (৭০) বোন-মনজুয়ারা (৫৫), মাজেদা খাতুন (৪২), দোলাভাই-আজাহারুল ইসলাম (৪৫) পিটিয়ে জখম করে। এসময় তারা গাছগাছালি কেটে নষ্ট করে। ওই সময় ৯৯৯ এর ফোন পেয়ে কলারোয়া থানা পুলিশ ঘটনা স্থানে এসে আকছেদ আলী, হযরত, এরশাদ, মামুন, মদুত ও ইমরানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসেন। পরে তারা বাড়ীতে চলে এসে ভ্যান চালকের উপর হুমকি দিতে থাকে। তার বাপ-চাচারা দুইভাই। তাদের পৈত্রিক দুই দাগে ৪২শত জমি রয়েছে। সেই জমির মধ্যে থেকে চাচা সৈয়লদ্দিন দফাদার তার পৈত্রিক ২১শতক জমি রায়টা গ্রামের হামিদুল্লাহ সরদারের কাছে বিক্রয় করে দেন।

এর পূর্বে থেকে নিরহ ভ্যান চালক তার পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্য ২১শতক জমিতে ৩ বোন ও মাকে নিয়ে বসত বাড়ী করে বসবাস করে আসছেন। তিনি ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। এর মধ্যে তার চাচার বিক্রয়কৃত জমি হামিদুল্লাহ সরদার তার বড় ছেলে আজগার আলীর কাছে বিক্রয় করে দেয়। আজগার আলী ওই জমিতে কোন দিন ভোগ দখলও করেননি। এর পর আজগার আলী কৌশল করে তার ২১ শতক জমি আকছেদ আলী গাজী নামের এক ব্যক্তির কাছে বিক্রয় করে দেয়। দীর্ঘ দিন পরে আকছেদ আলী গাজী জমির দখল না পেয়ে নিরহ আবুল কাশেমের বাগানকৃত পৈত্রিক জমিতে পাকা বসত ঘর নির্মানের চেষ্টা করে। এতে বাধা দেওয়াতে তারা হামলায় শিকার হয়।

তিনি আরো বলেন-আমার পৈত্রিক জমি তারা গোপনে নিজেদের নামে রেকর্ড করে নেয়ার ঘটনায় তিনি সাতক্ষীরা আদালতে রেকর্ড সংশোধনের মামলা করেছেন, জমি অবৈধ ভাবে দখলের চেষ্টার জন্য তিনি সাতক্ষীরা আদালতে ১৪৫ধারায় একটি মামলা করেন। তাদের উপর হামলা করে ৫জনকে জখম করার ঘটনায় আদালতে মামলা চলমান থাকার পরেও অবৈধ ভাবে বাড়ী ঘর ভাংচুর করে নিরহ ভ্যান চালকের পরিবারের উপর হামলা করেছে। এর পরে ওই জমি দখল করতে না পেরে রোরবার রাতে আগুন দিয়ে ঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে।

শনিবার সকালে ভ্যান চালক স্থানীয়দের বিষয়টি জানালে প্রতিপক্ষরা ক্ষিপ্ত হয়ে হয়রানী মূলক মামলা দিয়ে নিরহ ভ্যান চালকের চাচাতো ভাইয়ের ছেলে ইমাদুল ইসলাম ইমাদুলকে থানা পুলিশে ধরিয়ে দেয়। এদিকে নিরহ ভ্যান চালক আবুল কাশেম ন্যায় বিচার পাওয়ার জন্য সাতক্ষীরা জেলা পুলিশ সুপার ও আদালতের বিচারকের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।